fbpx
নাস্তা

ইফতারে বানাতে পারেন পারফেক্ট মুচমুচে সিঙ্গারা

বিকালের নাস্তায় চায়ের সাথে ধোঁয়া ওঠা গরমা গরম সিঙ্গারা কার না পছন্দের! খুব সাধারণ কিছু উপকরণ দিয়ে সহজেই তৈরি করা যায় দারুণ মজার এই খাবারটি। অনেকে বাড়িতে এটা করেও থাকেন। এত যত্ন করে বানানোর পরেও কেন যেন কিছুতেই দোকানের সিঙ্গারার মত হয় না। ভাজার সময় মুচমুচে দেখালেও নামানোর পরেই কেন যেন নরম হয়ে যায়। আর দোকানের সিঙ্গারার মত গা টা মসৃণ হয় না। তাহলে দেখে নিন-

উপকরন:

ময়দা ১ কাপ

তেল ২ টে চামচ

কালজিরা সামান্য

পানি পরমান মত

চিনি ১/২ চা চামচ

লবন স্বাদ মত

এই সব উপকরন দিয়ে একটু শক্ত শক্ত খামির তৈরি করে ১/২ ঘণ্টা ঢেকে রেখে দিন।

ভাজির উপকরণ:

আলু ছোট কিউব করে কাটা ২ কাপ

পাঁচফোড়ন আধাভাঙ্গা ১/৪ চা চামচ

লবন

মরিচ গুরা ১/২ চা চামচ

জিরা গুড়া ১।২ চা চামচ

আদা-রসুন বাটা ১/২ চা চামচ

গরম মশলা গুড়া ১/৪ চা চামচ

পেঁয়াজ কুচি ১ টি

কাঁচামরিচ কুচি ২ টি

ধনেপাতাকুচি

তেল ১ টে চামচ

প্রণালী:

১। প্যানে তেল গরম করে পাঁচফোড়ন দিন। তারপর পেয়াজ কুচি দিয়ে ভেজে বাকি মশলা ও লবন দিয়ে কশিয়ে নিন।

এবার কাঁচামরিচ ও আলু দিয়ে একটু নেড়ে সামান্য পানি দিয়ে আঁচ কমিয়ে ঢেকে দিন।

আলু সেদ্ধ হলে ধনেপাতা কুচি ছড়িয়ে নামিয়ে নিন।

২। এবার সিঙ্গারার মতো বানিয়ে ডুবতেলে ভেজে নিন।

টিপস:
১। খামির তৈরি করার পর তাতে সামান্য তেল মেখে ভেজা কাপড় দিয়ে ঢেকে রাখুন অন্তত ১/২ ঘণ্টা।

২। সবগুলা সিঙ্গারা বানিয়ে তারপর না ভেজে ২/৪ টে করে বানান আর তেলে ছাড়ুন।

৩। তেল খুব গরম করবেন না। মাঝারি উত্তাপে সিঙ্গারা তেলে দিন।

৪। সিঙ্গারার পকেট বানাতে রুটি খুব বেশি পাতলা করবেন না। এটা অনেক তা পরটার মত মোটা হবে।

৫। চুলার আঁচ হবে নিম্ন মাঝারি। একেকটা ব্যাচ ভাজতে ১৫-২০ মিনিট সময় নিন। হ্যাঁ , তা একটু সময় বেশি লাগবে বৈকি কিন্তু এতে আপনার সিঙ্গারা যেমন মুচমুচে হবে তেমনি এর গা ও মসৃণ হবে।

তো, একবার ফের ট্রাই করে দেখুন। আপনার সিঙ্গারা কোন অংশেই দোকানের সিঙ্গারার থেকে কম হবে না।

Show More

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button